মহিলা হকারদের পত্রিকা বিক্রি রহস্য “জনমনে আতঙ্ক”

    0
    231

    আমারসিলেটটোয়েন্টিফোর,০৮ সেপ্টেম্বর, এস. এম. সুলতান খান : চুনারুঘাট উপজেলায় মহিলা হকাররা এখন পত্রিকা বিক্রি করছে। এ নিয়ে রহস্য জনমনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। চুনারুঘাট পৌর শহর সহ উপজেলার সর্বত্র গতকাল শনিবার হেযবুত তওহীদ নামে ইসলামী সংগঠনের প্রকাশিত দৈনিক নিউজ নামে একটি পত্রিকা বিক্রি করতে দেখা যায়। রংপুর কুড়িগ্রামের ছুপিয়া বেগম (৩৬) ও চাঁপাই নবাবগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষীপুর সর্দারপাড়া গ্রামের জাকারিয়া খানের কন্যা ও লক্ষ্মীপুর কোনাপাড়ার মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী ১ সন্তানের জননী মোছাঃ নূরেছা আক্তার পারভীন (২৫) শিশু বাচ্চা ছুমাইয়া আক্তার (৩) কে নিয়ে ওই মহিলা হকাররা চুনারুঘাট বাজারে ওই পত্রিকা বিক্রি করতে দেখা যায়। মহিলা হকারদের হঠাৎ দেখে সাধারণ মানুষের মাঝে প্রশ্ন ও আতংক বিরাজ করছে।

    বাহিরের মহিলা হকার পত্রিকা বিক্রিতে রহস্য কি জানতে চায় উপজেলার সাধারণ মানুষ। উল্লেখ্য পত্রিকা বিক্রিকালে তাদের সাথে আলাপ করলে তারা বলেন, আমরা শায়েস্তাগঞ্জের পাচ পীরের মোকামে-জগন্নাথপুর গ্রামে বাসা ভাড়া করে থাকি। আমরা মোট ১০জন পত্রিকা বিক্রি করে থাকি হবিগঞ্জ জেলার সব স্থানে। আমরা হেযবুত তওহীদ সংগঠনের লোক। তাই আমরা নিউজ পত্রিকা বিক্রি করা আমাদের কাজ। প্রতিটি পত্রিকা বিক্রি করে ২টাকা পাই। সাংবাদিক ফারুক মাহমুদ ওই হকারদের কে ইংরেজী নিউ নেশন পত্রিকা বিক্রি করার জন্য প্রস্তাব দিলে তারা বলেন, আমরা এই পত্রিকা ছাড়া অন্য কোন পত্রিকা বিক্রি করব না। দেশের পত্র নামে একটি পত্রিকাও ছিল, সেটা এখন বর্তমানে আসেনি। আমরা এ কাজটি পেটের দায়ে করছি না, ইসলাম প্রচারের জন্য পত্রিকা বিক্রি করছি।

    হেযবুত তওহীদ একটি ইসলামী সংগঠন হয়ে মহিলাদেরকে দিয়ে পত্রিকা বিক্রির কাজ করানোর দায়িত্ব দেওয়াতে চুনারুঘাটের বিভিন্ন ইসলামী সংগঠনে দেখা দিয়েছে ক্ষোভ ও উত্তেজনা। এ নিয়ে চুনারুঘাটের সর্বত্র আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। সচেতন মহল মনে করছেন এ সংবাদপত্রগুলো এভাবে চুনারুঘাটে বিক্রি হলে জঙ্গীবাদের উত্তান হবে এবং এ সংগঠনটি নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন নাকি ? এ ব্যাপারে প্রশাসনের দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন মনে করেন চুনারুঘাট উপজেলাবাসী।