মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে মনমোহনকে তলব

    0
    200

    আমারসিলেট 24ডটকম ,২৬সেপ্টেম্বর  : ১৯৯০ইংতে পাঞ্জাবে বিদ্রোহ দমন অভিযানে মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিংহ কে তলব করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত। চার দিনের সফরে বর্তমানে তিনি ওয়াশিংটনে অবস্থান করছেন। নিউইয়র্ক-ভিত্তিক শিখ ধর্মাবলম্বীদের মানবাধিকার সংগঠন শিখ ফর জাস্টিস (এস,এফ,জে) মনমোহন সিংয়ের বিরুদ্ধে ইস্যুকৃত তলবপত্রটি হোয়াইট হাউসের স্টাফ এবং সিংয়ের নিরাপত্তা টিমের সদস্যদের দিতে এখন একটি জরুরি আবেদন দাখিল করার পরিকল্পনা করছে। এদিকে শুক্রবার ওবামা-মনমোহন বৈঠককালে তারা হোয়াইট হাউসের সামনে একটি “সুবিচার সমাবেশ” করবে বলেও যুক্তরাষ্ট্রের শিখ সংগঠনগুলো ঘোষণা করেছে।
    জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগাদান ও বারাক ওবামার সঙ্গে বৈঠকের জন্য মনমোহন সিং প্রেসিডেন্ট বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে যান।কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার কারণে এস,এফ,জের পক্ষে মনমোহন সিংয়ের কাছে তলবপত্রটি প্রদান করা খুবই কঠিন হবে। এছাড়া হোয়াইট হাউস এবং সিক্রেট সার্ভিসের জন্য আদালতের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা পেতেও এস,এফ,জেকে প্রক্রিয়াগত জটিলতায় পড়তে হবে।
    এস,এফ,জে কর্তৃক কংগ্রেসের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অনুরূপ একটি মামলায় কংগ্রেসের প্রতিনিধিত্বকারী নিউইয়র্ক ভিত্তিক অ্যাটর্নি রবি বাত্রা এটিকে প্রচারণার চমক সৃষ্টির কৌশল হিসেবে অভিহিত করেন।একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করে এস,এফ,জে আলোচনায় নিয়ে এসেছে এবং পত্রিকার শিরোনাম হচ্ছে, অন্যদিকে এটি আইন, সৌজন্য ও কাণ্ডজ্ঞানের জন্য অবমাননাকর।
    আদালতে দাখিল করা ২৪ পৃষ্ঠার অভিযোগনামায় বলা হয়, ১৯৯০-এর দশকের গোড়ার দিকে মনমোহন সিং অর্থমন্ত্রী থাকাকালে বিদ্রোহ দমনে আইন-বহির্ভূত পন্থায় শিখ হত্যার জন্য নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের নগদ অর্থ পুরস্কার দেয়ার বিষয়টি অনুমোদন দিয়েছিলেন এবং অর্থ যোগান দিয়েছিলেন। এতে আরো অভিযোগ করা হয় যে, সিং ২০০৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ওপর ১৯৮৪ সালে শিখ বিরোধী দাঙ্গার জন্য দায়ী তার রাজনৈতিক দলের সদস্যদের সক্রিয়ভাবে রক্ষা করেন।