মামুনুর রাশীদ মামুন সিলেট-৫ আসনে ১৮দলের প্রার্থী

    0
    226

    আমারসিলেট24ডটকম,২৪নভেম্বর,জসীম উদ্দীন সাবেক চাকসুর আপ্যায়ন সম্পাদক,কানাইঘাট-জকিগঞ্জ ১৮ দলীয় জোটের সমন্নয়ক,কানাইঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি,বিশিষ্ট সমাজসেবী জনাব মামুনুর রশীদ মামুন আগামী নির্বাচনে সিলেট-৫ (কানাইঘাট-জকিগঞ্জ) আসনে ১৮ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশী।
    সে লক্ষে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিভিন্ন সভা-সমাবেশ করে তিনি আগামী নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়ে আসছেন।
    এবং জয়ের ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
    মামুনর রশিদ মামুন বলেন ১৯৯৮ সাল থেকে জোটের স্বার্থে এই আসনটি জামাত প্রার্থী মাওঃ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী কে ছেড়ে দিয়ে আসছে বিএনপি। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার পর তার একলা চল নীতির কারনে বিএনপির নেতা কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে,তাদের দাবি একটাই বিএনপির প্রার্থী। তাই দলের স্বার্থে এবং নেতা কর্মীদের দাবীর মুখে গত নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন।কিন্তু
    বিএনপির ইলেকশন পার্লামেন্টারী বোর্ডের সাক্ষাতে নেত্রী খালেদা জিয়া দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে থাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে এমন আশ্বাস দেন। এমন আশ্বাসের প্রেক্ষিতে দল ও জোটের বৃহত্তর স্বার্থে তিনি মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেন।আর সেই নির্বাচনে জামাত প্রার্থী ফরিদ চৌধুরী সূচনীয় ভাবে পরাজিত হন মহাজোট প্রার্থী হাফিজ আহমেদ মজুমদারের কাছে।ইতিপূর্বে ফরিদ চৌধুরী
    ৪ টি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করে মাত্র ১ টিতে জয়ী হয়েছেন আর এটি ১৮ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রাপ্তির জন্য সবচেয়ে বড় অযোগ্যতা বলে মনে করেন মামুনুর রশীদ মামুন।
    এ দিকে মনোনয়ন লাভের জন্য দলের উচ্চ পর্যায়ে তিনি সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রেখে চলেছেন। সম্প্রতি লন্ডনে গিয়ে চিকিৎসাধীন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে সাক্ষাৎ করে এসেছেন।
    এঁদিকে মহাজোট প্রার্থী বর্তমান সাংসদ হাফিজ মজুমদার সরকারের মেয়াদে কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন করতে ব্যর্থ হয়েছেন। দলের নেতাকর্মীদের খোঁজ-খবর না নেওয়ার কার্যত তিনি গণবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন,তাই মহাজোটের অনেকেই তার সাথে যোগাযোগ করে চলেছেন।
    ইতিমধ্যে তিনি কানাইঘাট-জকিগঞ্জের গ্রাম গঞ্জে সভা-সমাবেশ,ইফতার মাহফিল,বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও এতিম খানায় দান খয়রাত করে সবার নজরে এসেছেন।
    এদিকে তার প্রার্থীতা ঘোষণায় নেতাকর্মীরা  দীর্ঘদিনের নীরবতা কেটে তার পক্ষে মাঠে নেমে পড়েছেন।তাই মনোনয়ন পেলে তার জয় নিশ্চিত বলে মনে করেন তিনি।