মুক্তিযুদ্ধে অবদানের স্বীকৃতির সম্মাননা নিতে ২০৩ জনকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে সরকার

    0
    540

    মুক্তিযুদ্ধে অবদানের স্বীকৃতি জানাতে রাষ্ট্রনায়ক, রাজনীতিবিদসহ দেশি-বিদেশি বরেণ্য ব্যক্তি এবং সংগঠনসহ ২০৩ জনকে সম্মাননা নিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছে সরকার।

    আগামী ২৪ মার্চ ৬ষ্ঠ পর্যায়ের সম্মাননা প্রদান করা হবে।

    ওইদিন সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁদের হাতে ‘বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা’ ও ‘মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননা’ তুলে দেবেন।

    বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সম্মাননা গ্রহণ করতে ৬৮ জন তাঁদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছেন।

    বৃহস্পতিবার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন এবি তাজুল ইসলামের (অব.) সভাপতিত্বে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

    সভায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এইচ মাসুদ সিদ্দিকীসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

    সভায় জানানো হয়, এ উপলক্ষে আগামী ২৪ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত তিন দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

    সভায় বলা হয়, ২৩ মার্চ থেকে আমন্ত্রিত অতিথিরা বাংলাদেশ আসতে শুরু করবেন। আগামী ২৫ মার্চ আমন্ত্রিত অতিথিরা নৌবিহারে অংশগ্রহণ নেবেন ও শিখা চিরন্তন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর ও রায়ের বাজার বধ্যভূমি পরিদর্শনে যাবেন।

    পরদিন ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে তাঁরা সকালে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণসহ অন্যান্য রাষ্ট্রীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।

    অনুষ্ঠান শেষে ২৭ মার্চ আমন্ত্রিত অতিথিরা বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন।