মুফতি ইজহারের মাদ্রাসায় বিস্ফোরণ !

    0
    244

    আমারসিলেট 24ডটকম,০৭অক্টোবর:আজ সোমবার সকালের দিকে নগরীর খুলশী থানার লালখান বাজার এলাকায় মুফতি ইজহারুল ইসলামের জামেয়াতুল উলুম আল ইসলামিয়া মাদ্রাসার চার তলা ছাত্রাবাস ভবনের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে বিস্ফোরণ হয়। ফলে ওই কক্ষের সব কিছু পুড়ে গেছে।

    খুলশী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) গোলাম নেওয়াজ বলেন, মাঝারি আকারের এই কক্ষে ল্যাপটপ চার্জে দেয়া ছিল বলে মাদ্রাসার লোকজন বলছে ।  ওই ল্যাপটপের পাশে একটি স্টোভের চুলা, ডেক্সটপ কম্পিউটার ও ছিল। তিনি বলেন, কম্পিউটারের ইউপিএস বা ল্যাপটপ বিস্ফোরণে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে মাদ্রাসা ছাত্র-শিক্ষকরা দাবি করছেন ।

    আগ্রাবাদ ফায়ার স্টেশনের কর্মকর্তা মোনায়েম বিল্লাহ বলেন,  বিস্ফোরণে আহত আবদুল্লাহ, খালেক,  জব্বার, করিম ও আমানুল্লাহকে হাপাতালে নেওয়া হয়েছে।এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, বিকট শব্দে বিস্ফোরণের পর কক্ষটিতে আগুন লেগে যায়। পরে মাদ্রাসার লোকেরা  পানি ও বালি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আবদুল মালেক বলেন, কেন ? কিভাবে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।বিস্ফোরণের পর মাদ্রাসার বাইরে বাগঘোনা মোড় এলাকায় মিছিল করছে স্থানীয় এলাকাবাসী ও ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা,তারা “বোমাবাজদের আস্তানা জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও” শ্লোগান দিচ্ছে মিছিল থেকে।

    হেফাজতে ইসলামীর নায়েবে আমির ও নেজামে ইসলামীর নেতা মুফতি ইজহারুল ইসলামের ছেলে মুফতি হারুন ইজহার বলেন, ঘটনার সময় আমি মাদ্রাসায় ছিলাম না। পরে  শুনেছি কম্পিউটার ইউপিএস বিস্ফোরণে ঘরের বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে।