যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়েছে পাকিস্তানঃউপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ

    0
    210

    আমারসিলেট24ডটকম,১ডিসেম্বরঃ কসাই কাদের মোল্লার ফাঁসির ঘটনায় পাকিস্তান জাতীয় পরিষদে নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণের মাধ্যমে যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়েছে পাকিস্তান। এর মাধ্যমে তারা আবারো ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে। স্পিকারের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হবে। চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ একথা জানিয়েছেন।

    আজ বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদের মিডিয়া সেন্টারের সংবাদ সম্মেলনে তিনি সংসদ সদস্যদের পক্ষ থেকে পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তিনি বলেন, নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণের ওই ঘটনা একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীন বিষয়ে নগ্ন হস্তক্ষেপ। যা অনৈতিক ও কূটনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত। চিফ হুইপ আরো বলেন, যেহেতু দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলমান, তাই এ মুহুর্তে অধিবেশন ডাকা সম্ভব না থাকায় সকল সংসদ সদস্যদের পক্ষ থেকে এই প্রতিবাদ জানানো হচ্ছে।

    এ বিষয়ে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ পাঠানো হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে চিফ হুইপ বলেন, স্পিকারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কারণ পাকিস্তানের এই আচরণ কোন ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। জাতীয় সংসদের পাশাপাশি সরকারের পক্ষ থেকেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান।
    চিফ হুইপ বলেন, বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পূর্ণ আইনী প্রক্রিয়া মেনে হচ্ছে। আর সকল আইনী প্রক্রিয়া শেষ করেই যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় কার্যকর করা হয়েছে। অন্যান্য যুদ্ধাপরাধীদের বিচারও আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে শেষ হবে। ‌এক্ষেত্রে পাকিস্তানের উন্মুক্ত নাক গলানোর কোন অধিকার নেই।

    আজকের সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হুইপ আ স ম ফিরোজ বলেন, পাকিস্তান সামরিক বাহিনী ১৯৭১ সালে এদেশের নিরীহ বাঙ্গালীর উপর গণহত্যা চালিয়ে জঘণ্য অপরাধ করেছে। এবার জাতীয় পরিষদে নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণের মাধ্যমে তারা আবারো একই অপরাধ করেছে। যা ক্ষমার অযোগ্য। বাংলাদেশের জনগণ কোন ভাবেই তাদের ক্ষমা করবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।