যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে মারপিট:এক মাস্টারের বিরুদ্ধে অভিযোগ

    0
    203

    আমারসিলেট24ডটকম,নভেম্বর,ফারুক মিয়াঃ এবার যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে বেধড়ক মারপিট করেছে গাতাবলা দাখিল মাদ্রাসা শিক্ষক জাহাঙ্গীর মিয়া। শুধু তাই নয়! একগুচ্ছু চুলও কেটে দিয়েছেন তিনি। নিরুপায় ওই গৃহবধু দুটি অবুঝ শিশু নিয়ে চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্র্তি রয়েছে। এলাকাবাসী জানান,চুনারুঘাট উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের পীরের গাওঁ গ্রামের মৃত ছইবুল্লাহর ছেলে গাতাবলা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক জাহাদীর দীর্ঘ ১০ বছর পূব্যে প্রেমের সূত্র ধরে কুষ্ঠিয়া জেলার মালুয়া গ্রামের আব্দুল হাসেমের মেয়ে তাজলিমা আক্তার মিতা(২৫)কে বিয়ে করেন।

    দাম্পত্য জীবনে এদের ১ ছেলে জয়(৩) এক মেয়ে নাম জুই(১) বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। শুরু দিকে দাম্পত্য জীবন সুখের হলে ও ৫/৬ বছর পরই শুরু হয় লেনদেন নিয়ে বাগ-বিত্তা। এ নিয়ে প্রায় সময়ই জগড়া বিবাদ লেগে থাকত। তাজলিমা আক্তার মিতা তার সংসার ঠিকাতে সকল যন্ত্রনা লাঞ্চনা সহ্য করে চলছে বলে জানা যায়।

    তাজলিমা আক্তার মিতা জানান। সম্প্রতি জাহাঙ্গগীর মিয়া মোটর সাইকেলের টাকা আনার জন্য স্ত্রীকে চাপ সৃষ্টি করে। তাজলিমা আক্তার মিতা অপারগতা প্রকাশ করলে শুরু করে মারপিট ও নিযার্তন। এ নিয়ে এলাকায় স্থানীয় ভাবে কয়েকবার বিচার শালীষ হয়েছে বলে একটি সূত্রে জানা যায়। কিন্তু তারপর ও জাহাঙ্গাগীর মিয়ার কোন পরির্বতন নেই। বুধবার দুপুরের মোটর সাইকেলের টাকার জন্য আবার স্ত্রী মিতাকে চাপ দেয়। একপযার্য় কথাকাটাকাটি হলে এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে মিতাকে বেধড়ক মারপিট ও নিযাতর্ন করে ও তার মাথায় কেচি দিয়ে একগুচ্ছু চুল কেটে ফেলে। এ সময় তার ছোট ২টি শিশু আহত হয়। পরে এলাকাবাসীরা এগিয়ে এসে উদ্ধার করে। আহত অবস্থায় মা ও শিশুটিকে চুনারুঘাট হাসপাতালে ১টার দিকে ভর্তি করে।