রক্ত পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে গ্রামে যাবার আহবান প্রধানমন্ত্রীর

    0
    243

     

     

     

     

     

     

     

     

     

     

     

     

     

     

     

    “ঈদে যারা ঘরে ফিরবেন, সবাই যেন সতর্ক, সচেতন থাকেন। যাদের মাথাব্যথা করবে, বমি বমি ভাব হবে, খাওয়ার ইচ্ছে থাকবে না, শরীরে জ্বর জ্বর ভাব থাকবে, তারা রক্ত পরীক্ষা করে এলাকায় বা ঘরের দিকে, গৃহযাত্রা করবেন- এটা আপনাদের সকলের কাছে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার আহ্বান”

    আসন্ন ঈদ-উল আজহা উপলক্ষে যারা ঢাকা ছাড়ছেন, তাদেরকে রক্ত পরীক্ষা করে ডেঙ্গু রোগ আছে কিনা তা নিশ্চিত হয়ে গ্রামের বাড়িতে যাবার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

    টানা ২০ দিনের সফর শেষে আজ (বৃহস্পতিবার) যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেই প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেছেন বলে বৃহস্পতিবার দুপুরে ধানমণ্ডিতে এক অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

    আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, “ঈদে যারা ঘরে ফিরবেন, সবাই যেন সতর্ক, সচেতন থাকেন। যাদের মাথাব্যথা করবে, বমি বমি ভাব হবে, খাওয়ার ইচ্ছে থাকবে না, শরীরে জ্বর জ্বর ভাব থাকবে, তারা রক্ত পরীক্ষা করে এলাকায় বা ঘরের দিকে, গৃহযাত্রা করবেন- এটা আপনাদের সকলের কাছে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার আহ্বান।

    তিনি বলেন, “আজ গণভবেন বিদেশ থেকে নেমেই যে কথা গুলো বলেছেন, সেগুলোই আমি আপনাদের সামনে বললাম। আমি আশা করি সবাই নিজেদের রক্ষা করব, নিজেদের রক্ষা করার জন্য যা যা করা দরকার করব।”

    ওবায়দুল কাদের

    সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী বঙ্গভবনে এসে প্রথমেই ডেঙ্গুর কি অবস্থা তার খোঁজ নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আর কোন কাজ নয় এখন একটাই কাজ সেটি হচ্ছে ডেঙ্গুকে প্রতিরোধ জরতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মতো সবাইকে পরিচ্ছন্ন ও ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ করতে সমন্বিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

    ওবায়দুল কাদের এ সময় বিএনপির প্রসঙ্গ টেনে বলেন, শুধু সমালোচনা করে দায়িত্ব পালন হয় না। ডেঙ্গু ও এডিস মশা রোধে বিএনপির কোন কার্যকর ভূমিকা নেই। বিরোধী দল হিসেবে তাদেরও ভূমিকা থাকা দরকার।

    ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, “আমি আপনাদের বলব সব সময় রাজনীতি করা ঠিক নয়। আসুন আমরা রাজনীতি না করে সমন্বিতভাবে মানুষের জন্য কাজ করি।“

    রুহুল কবির রিজভী

    মশার ঘুমের ওষুধ এনেছে সিটি করপোরেশন: রিজভী

    ওদিকে, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ডেঙ্গু নিধনে সিটি করপোরেশন ‘মশার ঘুমের ওষুধ’ এনেছে।

    আজ (বৃহস্পতিবার) বেইলি রোডে ডেঙ্গু প্রতিরোধে গণসচেতনতা সৃষ্টি লিফলেট বিতরণকালে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এই অভিযোগ করে সিটি করপোরেশন সম্পর্কে অনেক ধরনের কথা বলেছে, তামাশামূলক কথাবার্তা বলেছে। কারণ তাদের হাতে মশা মারার দরকারী ওষুধগুলো ছিল না। তারা কোটি কোটি টাকা দিয়ে যে ওষুধ নিয়ে এসেছে সেটা হচ্ছে- মশার ঘুমের ওষুধ। মশা কিছুক্ষণ ঘুমিয়ে শান্তির মধ্যে থাকবে সেই ওষুধ। প্রকৃতপক্ষে মশা নির্মূল হবে, নিধন হবে সেই ওষুধ নেয়নি।

    আজ সকাল ১১টায় জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা-জাসাস নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বেইলি রোডে ফুটপাতের দুই পাশের বিপণী বিতান ও সিদ্ধেশ্বরী গার্লস স্কুলের সামনে বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের কাছে ডেঙ্গু প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ের ওপর দলের লিফলেট বিতরণ করেন রিজভী।

    এ সময় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব প্রশ্ন করেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলছেন যে, ডেঙ্গুর জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা নিয়েছেন। কী ব্যবস্থা নিয়েছেন? আপনার সিটি করপোরেশন কী ব্যবস্থা নিয়েছে?

    ডেঙ্গুর মহামারীতে সরকার একেবারে উদাসীন উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘গণবিরোধী সরকার এই ধরনের চরিত্র ধারণ করতে পারে। সরকার ডেঙ্গু প্রতিরোধে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়নি, বরং এখনো মানুষের জীবন-মৃত্যু নিয়ে খেলা করছে।’

    ডেঙ্গু নিয়ে গণমাধ্যম আতঙ্ক ছড়াচ্ছে সরকার প্রধানের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘যারা ব্যর্থ হয় তাদের মিথ্যার আশ্রয় নিতে হয়, যারা জনকল্যাণের মধ্যে থাকে না তাদের অসত্যের ওপর, মিথ্যার ওপর, বিভ্রান্তির ওপর নির্ভর করতে হয়। কারণ নিজেরাই হচ্ছে ভোটারবিহীন একটি সরকার। এই কারণে তারা মিডিয়ার বিরুদ্ধে বলছে।’ পার্সটুডে