রবিবার থেকে ৬০ ঘণ্টার হরতাল দিয়েছে বিএনপি

    0
    234

    “প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এ সরকারের আর কোন আদেশ নির্দেশ আপনারা মানবেন না বিরোধীদলীয় নেতা।”

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবরআগামী ২৭ অক্টোবর রবিবার ভোর ৬টা থেকে ২৯ অক্টোবর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত টানা ৬০ ঘণ্টার হরতাল দিয়েছে বিএনপি।আগামী দুই দিনের মধ্যে আলোচনা করে সংকট সমাধান না করলে আগামী ২৭ থেকে ২৯ অক্টোবর সারাদেশে হরতাল পালন করা হবে। আজ শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত ১৮ দলের সমাবেশ থেকে এ কর্মসূচী ঘোষণা করেন প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এর আগে তিনি ২৭ অক্টোবর থেকে এ সরকার অবৈধ বলে আবারো মন্তব্য করেছেন। প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এ সরকারের আর কোন আদেশ নির্দেশ আপনারা মানবেন না। তারও আগে আজ বিকেল ৪টার দিকে তিনি সমাবেশস্থলে এসে পৌঁছান। এ সময় নেতাকর্মীরা স্লোগানে স্লোগানে তাকে স্বাগত জানান। মঞ্চে এসে তিনি হাত নেড়ে উপস্থিত নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছার জবাব দেন।
    আওয়ামী লীগ সরকারের  উদ্দেশে খালেদা জিয়া বলেন, আপনারা সরকারে নেই। আপনারা অবৈধ। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার জনগণকে ভয় পায়। সরকার সমাবেশ বন্ধ করে দিতে চেয়েছিল। আমরা বলেছিলাম, বাধা দিলে পরিণতি ভালো হবে না। অবশেষে সরকার সমাবেশ করতে দিয়েছে কিন্তু মাইক লাগাতে দেয়নি। এ কারণে বহু নেতা কর্মী সমর্থক সমাবেশের বক্তব্য শুনতে পাচ্ছে না, দেখতে পাচ্ছে না। সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, তারা জনগণের সরকার নয়। তারা শুধু আওয়ামী লীগের জন্য কাজ করেছে।
    সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণে বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, এ সরকার জনগণকে ভয় পায়।আমাদের সমাবেশে পদে পদে বাধা দিচ্ছে। তারা জনগণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। তিনি অভিযোগ করেন, সরকার লুটপাট করেছে। প্রতিষ্ঠান ও প্রশাসনকে দলীয়করণ করেছে এবং অঘোষিত বাকশাল কায়েম করেছে। বাকশালের জন্য দেশ স্বাধীন করা হয়নি মন্তব্য করে তিনি অভিযোগ করেন, সরকার দেশকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।
    খালেদা জিয়া বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। তার ফর্মুলা অনেক আগেই দেশের মানুষ বাতিল করেছেন। আপনারা বলেছেন জাতীয় সংসদে গিয়ে কথা বলতে। আমরা সেটা বলেছি। কিন্তু আপনারা কোনো উদ্যোগ নেননি। তিনি বলেন, সব দলের অংশগ্রহণ ছাড়া এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না। একদলীয় নির্বাচনের আয়োজন করলে নির্বাচন কমিশনের পরিণতি ভালো হবে না বলেও তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি আবারও নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি মেনে নেয়ার আহ্বান জানান এবং তার দেয়া নির্বাচনকালীন সরকারের প্রস্তাব মেনে নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
    বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেই আজ দুপুর ২টা ১৫ মিনিটে পবিত্র কুরআর তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে সমাবেশ আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা। আজ শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দল আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। শুক্রবার বিকেল চারটা ৪৫ মিনিটে তিনি বক্তব্য শুরু করেন।