শফীর দোয়া নিয়ে আন্দোলনের ঘোষণা এরশাদের

    0
    233

    আমার সিলেট  24 ডটকম,১৭নভেম্বরঃ আজ দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারী কওমি মাদ্রাসায় হেফাজতে ইসলামের আমির আহমদ শফীর  সাথে বৈঠকের পর শফীর দোয়া নিয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক  স্বৈরশাসক এরশাদ। কয়েক দিনের মধ্যেই নতুন জোট করে সরকার বিরোধী আন্দোলন শুরু করবেন বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি। তবে এরশাদের নতুন জোটে হেফাজতে ইসলাম থাকবে কিনা সে প্রশ্নের কোনো উত্তর এখনো  পাওয়া যায় নি।
    আজ হেফাজতে ইসলামের আমির শফীর সাথে বৈঠক করার জন্য রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হাটহাজারী মাদ্রাসায় যান সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদ। বেলা পৌনে ১২টার দিকে তিনি শফীর কক্ষে বৈঠক শুরু করেন। প্রায় ৫০ মিনিটের ওই বৈঠকে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন বাবলু, স্থানীয় সংসদ সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং হেফাজতে  ইসলামের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব সাংবাদিকদের জানান, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এসেছিলেন দোয়া নিতে। বৈঠকে রাজনৈতিক কোনো আলোচনা হয়নি। তবে এরশাদ জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় গেলে হেফাজতে ইসলামের ১৩ দফা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবেন।
    উল্লেখ্য,গত শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জাতীয় যুবসংহতির সম্মেলনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ত্যাগ ও ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে চাপে আছেন বলে স্বীকার করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ। সেসময় তিনি বলেন, আমি কি বোঝা যে বহন করছি তা জানি না। পথ হারিয়ে ফেলেছি, দিশেহারা হয়ে পড়েছি।
    এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যদি আওয়ামী লীগের অধীনে নির্বাচন করি তাহলে বেঈমান হয়ে  মরতে হবে। আর যদি নির্বাচন না করি তবে পরবর্তী সরকার কিভাবে আসবে এটা একটা বিরাট প্রশ্ন। কি হবে জানি না। তবে এরশাদ যুবসংহতির সম্মেলনে বক্তব্যে রাখার সময় বার বার উপস্থিত দলের নেতাকর্মীরা মহাজোট ছাড়ার শ্লোগান দেয়। তাদের শান্ত করতে অনুষ্ঠান শেষে এরশাদ বলেন, আমরা আর মহাজোটে নেই। দুএকদিনের মধ্যেই সংবাদ সম্মেলন করে মহাজোট ছাড়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হতে পারে বলে জানা যায়।