মহাসমাবেশ করবে হেফাজতঃনাশকতা ঠেকাবে সরকার

    0
    319

    আমার সিলেট  24 ডটকম,০২নভেম্বরঃ শনিবার বিকেলে চট্টগ্রামের হাটহাজারী পার্বতী উচ্চবিদ্যালয় মাঠে সমাবেশে হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকার সদস্য সচিব মাওলানা জুনাইদ আল হাবিব এ ঘোষণায় বলেন রাজধানী ঢাকার শাপলা চত্বরে ফের মহাসমাবেশ করবে হেফাজতে ইসলাম। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির শাহ আহমদ শফী এ মহাসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ।কওমি শিক্ষা আইন-২০১৩ বাতিল, ১৩ দফা বাস্তবায়ন এবং গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবিতে আগামী ১৫ নভেম্বর এ সমাবেশ করবে তারা।এছাড়া ৭ নভেম্বর সিলেটে, ৮ নভেম্বর খুলনায় এবং ১২ ও ১৩ ডিসেম্বর চট্টগ্রামেও মহাসমাবেশের ঘোষণা দেয়া হয়।

    বক্তব্য রাখেন সংগঠনের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী, হেফাজতের ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক নুর হোসেন কাসেমী, ঢাকা মহানগর যুগ্ম আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় মহাসচিব জাফর উল্লাহ খান, কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির আব্দুল হামিদ পীর সাহেব মধুপুরী, কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির শামশুল আলম, ঢাকা মহানগর যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুর রব ইউসুফী, ঢাকা মহানগর কমিটির সদস্য সচিব জুনায়েদ আল-হাবীব, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল সৈয়দ মোহাম্মদ ইব্রাহিম বীর প্রতীক।সরকার কওমী মাদ্রাসা নিয়ন্ত্রণে উঠে পড়ে লেগেছে। কিন্তু তৌহিদি জনতা বেঁচে থাকতে তা হতে দেওয়া হবে না। কওমী শিক্ষা বন্ধে বর্তমান সরকারের মন্ত্রীরা মিথ্যাচার করছেন। তারা কওমী মাদ্রাসার বিরূদ্ধে অপপ্রচার করছে।

     তিনি বলেন, আমরা সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার করব বলে সরকার অপবাদ দিচ্ছে। এটি ডাহা মিথ্যা অপবাদ। আমরা যদি অত্যাচার করতাম তাহলে হাটহাজারী বড় মাদ্রাসার পাশে দেড়শ বছরের মন্দির থাকত না। বর্তমান সরকারই বরং বিভিন্ন জায়গায় সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার করে।চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি সালাউদ্দিন নানুপুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফী।