শার্শায় শফিক বাহিনীর হাতে ৩ নেতা জখম:পুলিশ ভয় পায়!

    0
    246

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৪ফেব্রুয়ারী,এম ওসমান: শার্শার বাগআঁচড়ার শফিক বাহিনীর সন্ত্রাসী হামলায় আবারো আহত হয়েছে দুই আওয়ামীলীগ নেতা । আহতরা হল বাগআঁচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সাতমাইল আলিম মাদ্রাসার সভাপতি ইয়কুব আলী বিশ্বাষ, বাগআঁচড়া ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতা আসাদুল ইসলাম ও জামাল হোসেন।

    প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় সাতমাইল মহিলা আলিম মাদ্রাসার ম্যানিজিং কমিটির মিটিং চলাকালিন সময়ে শার্শার বাগআঁচড়ার ত্রাস ও বাহিনী প্রধান শফিক ধাবক হামলা চালায়। এ সময় বাগআঁচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সাতমাইল আলিম মাদ্রাসার সভাপতি ইয়কুব আলী বিশ্বাষ, বাগআঁচড়া ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতা আসাদুল ইসলাম ও জামাল হোসেনকে লোহার রড ও হকস্টিক দিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ সময় মিটিংয়ে থাকা অন্যান্যদের পিটিয়ে জখম করে বলে সুত্রটি জানান।

    আহত ইয়কুব আলী বিশ্বাষ জানান, সাতমাইল মহিলা আলিম মাদ্রাসার ম্যানিজিং কমিটির মিটিং চলাকালিন সময়ে হঠাৎ করে বাহিনী প্রধান শফিক ধাবক, লাল্টু, মনিসহ ১০/১২জনের একদল সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এ সময় মিটিংয়ে থাকা অন্যান্যদের পিটিয়ে জখম করে।

    এলাকাবাসী জানান, বাগআঁচড়ার ত্রাস ও বাহিনী প্রধান শফিক ধাবক গত দুই বছর যাবদ এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব গড়ে তুলেছে। প্রায়ই সে এলাকার নিরীহ মানুষদের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করলেও প্রশাসন তাকে কিছু করতে পারছে না। তার বিরুদ্ধে হাফডজন মামলা ও অভিযোগ থাকলেও বিশেষ কারনে রেহায় পেয়ে যাচ্ছে।

    এ ব্যাপারে বাহিনী প্রধান শফিক ধাবকের প্রতিবেশি আব্দুল খতিব ধাবকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব করে চলেছে। এলাকার নিরীহ মানুষের উপর নির্যাতন ও বাড়ী ঘর ভাংচুরসহ লুটপাট করলেও তার নামে মামলা নিতে পুলিশ ভয় পায়। শফিক ধাবকের গডফাদাররা এতই শক্তিশালী যে পুলিশ তাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে।

    ঘটনার ব্যাপারে শার্শা থানার ওসির কাছে জানতে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

    এ ব্যাপারে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্য এসআই সৈয়দ বায়েজিদ-এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেখানে মারধরের ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।