শিবিরের আধাবেলা হরতাল:আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক

    0
    252

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবরদর্শনায় শিবির কর্মী নিহতের প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, ঝিনাইদহ ও কুষ্টিয়ায় আধাবেলা হরতাল পালন করছে  শিবির । হরতালের শুরুতেই মেহেরপুরে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইসলামী ছাত্রশিবির কর্মীরা। এ সময় তারা রাস্তায় টায়ারে আগুন ধরিয়ে দেয় ও গাছের গুঁড়ি ফেলে সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে। আজ সকাল ৬টা থেকে পৌনে ৭টার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সতর্ক অবস্থানের কারণে চুয়াডাঙ্গা ও ঝিনাইদহে আজ সকাল থেকে হরতালকারীদের তেমন কোনো তৎপরতা চোখে পড়েনি বলে সংবাদ সুত্র থেকে জানায়।
    হরতালের শুরুতে সকাল ৬ টার দিকে মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা সড়কের রাজনগর বাজার ও দীনদত্ত সেতুর সামনে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে শিবির কর্মীরা। তবে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই হরতালকারীরা সরে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে  জানান, মেহেরপুর সদর উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি আব্দুর রহিমের নেতৃত্বে হরতালকারীরা প্রায় এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়।
    চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক দেলোয়ার হোসাইন বলেন, সব রকম বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে চুয়াডাঙ্গা বিজিবির উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে ৬ প্লাটুন বিজিবি শহরে সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। পাশাপাশি মোতায়েন রাখা হয়েছে বাড়তি পুলিশ। এদিকে ঝিনাইদহে সকাল থেকে হরতালকারীদের তেমন কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনারও খবর পাওয়া যায়নি।
    সদর থানার ওসি কাজী জালাল উদ্দিন আহমেদ জানান, নাশকতা ঠেকাতে শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। হরতালের কারণে সকালে মেহেরপুর থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। চুয়াডাঙ্গাতেও দোকানপাট ও ভারী যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।
    এদিকে সকাল থেকে এখন পর্যন্ত কুষ্টিয়ায় কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। শহরজুড়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যদের উপস্থিতিতে দোকানপাট খুলতে শুরু করেছে। এছাড়া হরতালের কারণে পাঁচ প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।
    হরতালে নাশকতা এড়াতে শনিবার সন্ধ্যা থেকে চুয়াডাঙা জেলা সদরের পাশাপাশি দর্শনা, হাসাদহ ও বদরগঞ্জ বাজারসহ জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে বিজিবি টহল অব্যাহত রয়েছে। এদিকে, হরতালের সমর্থনে শনিবার সকালে চুয়াডাঙা, দামুড়হুদা , জীবননগর, আলমডাঙ্গা ও দর্শনাসহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় ঝটিকা মিছিল করেছে শিবির কর্মীরা।
    পুলিশের এ নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদে চার জেলায় অর্ধদিবস হরতাল পালন করা হচ্ছে বলছেন জামাত কর্মীরা । যদিও এর আগে সকাল-সন্ধ্যা পালনের ঘোষণা দিয়েছিলো তারা। পরে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করে ঈদ ও পূজার কথা বিবেচনা করে অর্ধদিবস করা হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। অপরদিকে, জামায়াত-শিবিরের ডাকা হরতাল প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা।
    চুয়াডাঙা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরী জানান, হরতাল অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। একই সঙ্গে পুলিশ ও র‌্যাবের টহল জোরদার করা হয়েছে।
    প্রসঙ্গত, চুয়াডাঙ্গায় গত বৃহস্পতিবার পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে শিবিরকর্মী রফিকুল ইসলামের নিহতের প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, ঝিনাইদহ ও কুষ্টিয়ায় আজ রবিবার আধাবেলার এ হরতাল ডাকে ইসলামী ছাত্র শিবির। আজ ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্তএ হারতাল পালনের ঘোষণা দেন জামায়াত-শিবির।