শ্রমিকনেতা কুর্মীকে আবার গ্রেফতারে প্রতিবাদ ও মুক্তি দাবি

    0
    239

    আমারসিলেট24ডটকম,২১জানুয়ারীঃ সিলেটের জনপ্রিয় চা ও রাবার শ্রমিকনেতা মালনীছড়া রাবার শ্রমিক সংঘ রেজিঃ নং চট্টঃ২৩৫৬-এর সভাপতি, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক শ্রমিকনেতা জয় মাহাত্ম কুর্মীকে একটি মিথ্যা মামলায় আটকের পর ১৯ জানুয়ারি জামিল পাওয়ার পর ২০ জানুয়ারি সকালে জেল থেকে মুক্ত হওয়ার ২ ঘন্টার মধ্যেই পুণরায় আটক করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি মোঃ নুরুল মোহাইমীন ও সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাস। নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে উল্লেখ করেন জয় মাহাত্ম কুর্মীকে গত ১০ নভেম্বর একটি মিথ্যা মামলায় আটকের পর প্রায় আড়াই মাস জেল খেটে মুক্ত হওয়ার পর সংগঠনের কার্যালয় হতে বিমানবন্দর থানা পুলিশ পুণরায় আটক করে।

    আটক করার সময় পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত শ্রমিক নেতৃবৃন্দকে জানান জয় মাহাত্ম কুর্মীর নামে কোন মামলা নাই শুধু পুলিশ কমিশনারের সাথে আলোচনা করার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। পরে জয় মাহাত্ম কুর্মীকে কোতয়ালী থানায় আটক রাখা হয়। নেতৃবৃন্দ আরও উল্লেখ করেন জয় মাহাত্ম কুর্মীর নেতৃত্বে মালনীছড়া রাবার শ্রমিক সংঘের পতাকা তলে সংগঠিত হয়ে যখন রাবার শ্রমিকরা দৈনিক ১৫০ টাকা মজুরি, সাপ্তাহিক ৫ কেজি রেশনসহ বিভিন্ন দাবি ও অধিকার প্রতিষ্টা করে চা ও রাবার শ্রমিকদের মধ্যে বিপ্লবী বিকল্পধারার সংগঠন সংগ্রাম অগ্রসর করে নিয়ে যাচ্ছেন তখন মালিকগোষ্ঠী, দালাল নেতৃত্ব, সরকার ও তার বিভিন্ন সংস্থা সমন্বিত হয়ে শ্রমিকদের আন্দোলন-সংগ্রাম ও সংগঠন দমন করতে একের পর এক ষড়যন্ত্র-চন্ত্রান্ত, মামলা-হামলা, গ্রেফতার-নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে।

    সের বেশি সময় ধরে কালাগুল বাগান বন্ধ রাখা হয়েছিল। কালাগুল বাগানের শ্রমিকদের আন্দোলনে সংহতি ও সমর্থন করায় চা ও রাবার শ্রমিকদের জনপ্রিয় নেতা জয় মাহাত্ম কর্মুীকে একের পর এক মিথ্যা মামলায় আটক করে নির্যাতন চালানো হচ্ছে। গ্রেফতারের প্রতিবাদে তাৎক্ষণিকভাবে চা ও রাবার শ্রমিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে শ্রমিকনেতা জয় মাহাত্ম কুর্মীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।