শ্রীমঙ্গলে বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য প্রশাসনের যৌথ অভিযান

0
162

আমার সিলেট রিপোর্ট: শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসন,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃক অভিযানে শ্রীমঙ্গল থানার সহযোগিতায় শহরের বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার এ ২৭শে সেপ্টেম্বর বুধবারে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ অভিযানে মৌলভীবাজার রোডস্থ “ডক্টরস পয়েন্ট” নামক ডায়াগনস্টিক সেন্টার এর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক অনুমোদনের লাইসেন্স না থাকায় এর সকল প্রকার ল্যাব কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশসহ আগামী ৭ দিনের মধ্যে লাইসেন্স নিশ্চিত করার সময় বেধে দেওয়া হয়।

একই দিনে চৌমুহনা সংলগ্ন তরাজ ম্যানশনের ‘অনলি ডেন্টাল এক্সরে’ প্রতিষ্ঠানে এক্সরে অবকাঠামো সম্পন্ন কোন রুম,এক্সরে টেকনিশিয়ান ও কোন লাইসেন্স এর কপি দেখাতে না পারায় উক্ত প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেওয়া হয়৷

অপরদিকে কলেজ রোডস্থ মজুমদার ডায়াগনস্টিক সেন্টার এর ল্যাব সেকশনের কোন কাগজপত্র না পাওয়ায় উক্ত প্রতিষ্ঠান এর ল্যাব কর্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করে লাইসেন্স করার জন্য ৭ দিনের সময় বেঁধে দেওয়া হয়।
এ সময় লাইসেন্স পাওয়ার আগ পর্যন্ত সকল ধরনের ল্যাব টেস্ট বন্ধ রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়।

অভিযানে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজীব মাহমুদ মিঠুন ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী,স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. পার্থ সারথি সিংহ, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম সেলিম, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর বিনয় সিং রাউতিয়া উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, “স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশে সারাদেশে অবৈধ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার-এ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।”
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজীব মাহমুদ মিঠুন বলেন ” এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। সবসময় পাশে থেকে স্বাস্থ্য প্রশাসনকে সাহায্য করা হবে।”
এই ধরনের অভিযানকে সাধারণ মানুষ অভিনন্দন জানিয়ে উপজেলা শহরের সকল ডায়গনস্টিক সেন্টারে নিয়মতান্ত্রিক তদারকি করার জন্য উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য প্রশাসনসহ কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।