শ্রীমঙ্গলে পাঁচ দিনব্যাপী ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেনিং এর উদ্বোধন

0
944
শ্রীমঙ্গলে পাঁচ দিনব্যাপী ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেনিং এর উদ্বোধন

শ্রীমঙ্গলে পাঁচ দিনব্যাপী ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেনিং এর উদ্বোধন

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলায় পিছিয়ে পড়া নারীদের থেকে সফল নারী উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে বাংলাদেশ ওমেন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (BWCCI) এর উদ্যোগে ৫ দিন দিনব্যাপী ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেনিং ২০২১ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানা যায়, আজ রোববার ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ ওমেন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (BWCCI) উদ্যোগে শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি সুলতানা আইরিন এর আয়োজনে শহরের সুরভি পাড়া আবাসিক এলাকায় বাংলাদেশ ওমেন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (BWCCI)  উপদেষ্টা মোঃ কবির আহমদ-এর সহযোগিতায় স্থানীয় ৩০ জন নারীর অংশগ্রহণে ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেনিং এর উদ্বোধন করেন শ্রীমঙ্গল ব্যবসায়ী সমিতির সেক্রেটারী ও জাতীয় পার্টির মৌলভীবাজার জেলার সাধারণ সম্পাদক হাজী কামাল হোসেন।

নারী উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন বাংলাদেশ ওমেন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (BWCCI) ‘র ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেইনার সাবা নওরীন, আমার সিলেট সম্পাদক ও শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি আনিসুল ইসলাম আশরাফী।

উপস্থিত ছিলেন চাম্পারায় চা বাগানের সিনিয়র এসিস্যানট ম্যানেজার মোঃ রাশেদুল হাসান।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংস্থার শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রতিনিধি সুলতানা আক্তার আইরিন ও উপদেষ্টা ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সদস্য মোঃ কবির আহমেদ।

উপস্থিত ছিলেন ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেনিং নিতে আগ্রহী স্থানীয়.৩০ জন নারী উদ্যোক্তা। ফ্যাশন ডিজাইন ট্রেইনার সাবা নওরীন তার বক্তব্যে বলেন, একটি দীর্ঘ দিনের ট্রেনিংকে আমরা ৪০ ঘণ্টায় নিয়ে এসেছি, যাতে করে ট্রেনিং এর সাথে সাথে নারী উদ্যোক্তারা তার ফলাফল দেখাতে পারে।বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট সেলিমা আহমাদ, তিনি কুমিল্লা-২ আসনের বর্তমান এমপি। তিনি নারীদের স্বাবলম্বী করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছে।

অপরদিকে শ্রীমঙ্গল ব্যবসায়ী সমিতির সেক্রেটারি হাজী কামাল হোসেন বলেন, আপনাদের কাজের মূল্যায়ন এর জন্য আমাদের পক্ষ থেকে যা করার আমরা তা করবো, এসময় তিনি শ্রীমঙ্গলে একটি ইকো রিসোর্ট ও লেদার ফ্যাক্টরির সম্ভাব্য সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেন। যে গুলিতে নারী কর্মীদের যথেষ্ট প্রয়োজন রয়েছে।

আনিসুল ইসলাম আশরাফী তার বক্তব্যে বলেন, এটি একটি ভালো উদ্যোগ এর জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাই। নারী পুরুষ একসাথে কাজ করলে একটি সংসারের উন্নয়ন দ্রুত সম্ভব। এর জন্য প্রয়োজন ধৈর্য,সাহস ও শালীনতার সাথে চলাফেরা করা।আমাদের প্রত্যাশা আপনারা সফল হবেন।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা মোঃ কবির আহমদ, তিনি বলেন, আমরা চাই আমাদের এ অঞ্চলের নারীরা উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরি হবে এবং তাদের মধ্যে যে অনুপ্রেরণা এবং সাহস রয়েছে তা কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতে একটি সুন্দর দেশ গঠনে এগিয়ে আসতে পারবে । সেজন্যই আমি নিজেও তাদের সহযোগিতা করে যাচ্ছি এবং সহযোগিতা সব সময় থাকবে, কেননা নারীরা যখন এই ট্রেনিং এর জন্য আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে আমরা তাদের পাশে দাঁড়াবো যাতে করে এখান থেকে প্রতিশ্রুতিশীল নারী উদ্যোক্তা তৈরি করা সম্ভব হয়।

পরিশেষে অবস্থিত প্রশিক্ষণার্থী নারী উদ্যোক্তাদের প্রতি অবস্থিত সকলেই এই ট্রেনিং চলাকালীন সময়ে সুশৃংখলভাবে ট্রেনিং থেকে প্রাপ্ত জ্ঞানকে ধারণ করে ভবিষ্যতে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যাশা করেন।