শ্রীমঙ্গলে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রতিমা বিসর্জন শোভাযাত্রা

    1
    331

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবরসনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে আজ সোমবার আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘটছে। গত ১০ অক্টোবর মহাষষ্ঠীর মাধ্যমে ৫ দিনের এ দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এরপর মহাসপ্তমী, মহাষ্টমী ও মহানবমীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের হাজার হাজার নারী-পুরুষ ধর্মীয় নানা আচার অনুষ্ঠান পালন করেন। বিজয়া দশমীর দিনে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে এ আনুষ্ঠানিকতা শেষ হচ্ছে আজ। সারা দেশের মত শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ও হিন্দু সম্প্রদায়ের দুর্গাপূজার বিসর্জন দিতে চলেছে ।আজ শ্রীমঙ্গল শহরের দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের এই সনাতন ধর্মাবলম্বীদের আকর্ষণীয় পুজা উৎসবে শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ এর নির্বাচিত এমপি জাতীয় সংসদের  চীফ হুইপ উপাধ্যক্ষ এম এ শহিদ সহ শ্রীমঙ্গলের বিভিন্ন দলের নেতা ও সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী এবং হাজার হাজার হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা দাঁড়িয়ে প্রতিমা বিসর্জনের  শোভাযাত্রা উপভোগ করেন। তবে, কোন কোন হিন্দু ধর্মাবলম্বীকে কাঁদতে ও দেখা যায়।

    এ বছর সারাদেশে প্রায় ২৮ হাজার পূজা মন্ডপ এবং ঢাকা মহানগরীতে ২১২টি মন্ডপ এবং শ্রীমঙ্গলে ১৫৭টি মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মতে এবার  তাদের দেবী দোলায় (পালকি) আগমন করেছেন এবং গজে গমন করছেন বলে এক হিন্দু পুরোহিত জানান। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আগামীকাল সকাল ১১টা ৩০ মিনিট থেকে ১২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত বঙ্গভবনে হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। বিজয়া দশমীতে আজ সরকারি ছুটির দিন ছিল।

    আজ  সকাল ৯টা ৪৮ মিনিটের মধ্যে দেশের বিভিন্ন পূজামন্ডপে দশমী বিহিত পূজা ও দর্পণ বিসর্জন অনুষ্ঠিত হবে।বিকালে শোভাযাত্রাসহকারে দেবী দুর্গা ও অন্যান্য দেব দেবীর বিসর্জন দেয়া হচ্ছে । শ্রীমঙ্গলের বিভিন্ন মন্দিরের পক্ষ থেকে আজ  বিজয়া দশমীর বৃহৎ বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।দুর্গাসহ অন্যান্য দেব দেবীকে এ শোভা যাত্রাসহ নৌ টর্মিনাল ও বড় পুকুরে  নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেখানে বিসর্জনের মাধ্যমে তাদের আনুষ্ঠানিক বিদায় জানানো হবে। দেবী মর্ত্যলোক থেকে আবার স্বর্গলোকে গমন করবেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের এমনই  ধারনা ।

    বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে বিজয়া দশমী উপলক্ষে দেশের সকল মানুষকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। পরিষদ শান্তিপূর্ণ ও উৎসব মূখর পরিবেশে পূজা উদযাপনে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করায় সকল রাজনৈতিক দল, সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকেও দেশবাসীর প্রতি বিজয়া দশমীর শুভেচ্ছা জানিয়েছে।