সরকারি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে : স্পিকার

    0
    270
    সরকারি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে : স্পিকার
    সরকারি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে : স্পিকার

    ঢাকা, ২১ মে : জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন সরকারি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে সরকারি হিসাব, অনুমিত হিসাব ও সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটি শক্তিশালী করতে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার বিশ্বব্যাংকের নবনিযুক্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর জোহান্স ঝাটের সঙ্গে আলাপকালে স্পিকার এ কথা বলেন।
    নবনিযুক্ত কান্ট্রি ডিরেক্টরকে স্বাগত জানিয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, ইতোমধ্যে অডিট আপত্তি নিস্পত্তিসহ উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে স্ট্রেনদেনিং পার্লামেন্টারি ওভারসাইট প্রকল্পের মাধ্যমে উল্লেখিত কমিটিগুলো শক্তিশালী করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।নারীর ক্ষমতায়নে গার্মেন্টস খাতের  ভূমিকার কথা উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, এ শিল্পের কর্মস্থলের পরিবেশ, শ্রমিক-কর্মচারীদের নিরাপত্তা ও অগ্নিনির্বাপণসহ সার্বিক কর্মপরিবেশের উন্নয়নে সরকার প্রয়াস চালাচ্ছে। বাংলাদেশে বিনিয়োগ সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে বিশ্বব্যাংকসহ অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগীদের বৈদেশিক বিনিয়োগ বড়াতে সহযোগিতা চান স্পিকার।
    স্পিকারের সঙ্গে আলাপকালে বিশ্ব ব্যাংকের জোহান্স ঝাট বলেন, সরকারি কার্যক্রমের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে জাতীয় সংসদের ভূমিকাই মূখ্য। এ লক্ষ্যে ফাইনান্সিয়াল ওভারসাইট কমিটিগুলো যাতে সঠিকভাবে কাজ করতে পারে, সে লক্ষ্যে বিশ্বব্যাংক সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও এ সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। অডিট আপত্তি নিস্পত্তিতে স্থায়ী কমিটির কাজেরও প্রশংসা করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের অনেক সাফল্য রয়েছে। বহির্বিশ্বে এগুলোর প্রচার হওয়া আবশ্যক। বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারা অক্ষুন্ন রাখতে বহুমুখী বিনিয়োগের পরামর্শ দেন জোহান্স। তিনি আরো বলেন, দারিদ্র্য বিমোচন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনসহ বেশ কিছু ক্ষেত্রে বাংলাদেশ প্রশংসনীয় অগ্রগতি অর্জন করেছে। এছাড়া নারীর ক্ষমতায়ন ও সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনেও উল্লেখযোগ্য সাফল্য লাভ করেছে।