সাংবাদিক কুদ্দুসের শিশু ধর্ষনের আলামত পাননি:নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ

    0
    264

    আমার সিলেট ডেস্ক,২৭ আগস্ট : গত শুক্রবার বেলা ১১টায় ঘোড়াঘাট উপজেলা দক্ষিন দেবীপুর গ্রামের ও ঘোড়াঘাট প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক সাংবাদিক রুহুল কুদ্দুসকে তার পার্শ্ববর্তী বাড়ীর প্রতিপক্ষ ইউপি সদস্য মনিরুল ইসলাম তার ৩ বৎসর বয়স্কা নাতনীকে বাড়ীর ভিতরে ঢুকে দেয়। কিছুক্ষন পর মনিরুল ইসলাম ও তার লোকজন সাংবাদিক রুহুল কুদ্দুসকে তার নাতনীকে ধর্ষনের অভিযোগ এনে তাকে বাড়ীতে আটক করে মারপিট শুরু করে।
    এর পর মনিরুল ইসলাম থানায় মোবাইল ফোন করলে ঘোড়াঘাট থানার এস,আই কল্যাণ চন্দ্র চক্রবর্তী সঙ্গীয় ফোর্স সহ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশের উপস্থিতি দেখে সাংবাদিক রুহুল কুদ্দুস তার বাড়ী থেকে দৌড় দিলে কল্যাণ চন্দ্র চক্রবর্তী তাকে ধাওয়া করে ধরে বাঁশের লাঠি দ্বারা এলোপাথারী মারপিট করে। মারপিটে তার ডান হাত ভেঙ্গে যায়।
    এছাড়াও তার শরীরে মারপিটের অসংখ্য দাগ রয়েছে। তার পর সাংবাদিক রুহুল কুদ্দুসকে থানায় নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা ছাড়ায় থানার হাজতে রেখে পরের দিন দুপুর ১২টায় দিনাজপুর জেল হাজতে প্রেরণ করে।গত রোববার ঘোড়াঘাট উপজেলা মাসিক আইন শৃঙ্খলা মিটিং-এ সাংবাদিক রুহুল কুদ্দুসের শিশু ধর্ষনের কথা উঠলে ঘোড়াঘাট হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নুর নেওয়াজ ভর্তি করা শিশুটির যৌন অঙ্গে ধর্ষন বা ধর্ষনের কোন চেষ্টার আলামত পাননি  বলে বক্তব্য প্রদান করেন। এ ব্যাপারে ঘোড়াঘাট স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।