সিলেটের মসজিদ মাদ্রাসা ও পাড়া-মহল্লা জুড়ে জিকির,এবাদত ও বিশেষ মোনাজাতে শবে বরাত পালিত

0
76

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট: পবিত্র শবে বরাত রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারী) পালিত হয়েছে। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা সংবাদ পাওয়া যায়নি।
যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় রোববার দিবাগত রাতে শবে বরাত পালিত হয়। সিলেট জুড়ে মসজিদ মাদ্রাসা ও মাজার প্রাঙ্গণ এবং পাড়া-মহল্লায় জিকির,এবাদত ও বিশেষ মোনাজাতে মুসল্লীরা মগ্ন ছিলেন মহান আল্লাহর স্মরণে। হিজরি বর্ষের শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাতটিকে মুসলমানরা ‘সৌভাগ্যের রজনী’ হিসেবে পালন করে থাকেন। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা এ রাতে আল্লাহর রহমত ও নৈকট্য লাভের আশায় নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকিরসহ বিভিন্ন ইবাদত বন্দেগির মাধ্যমে অতিবাহিত করেন।
আরবি শাবান মাস একটি মোবারক মাস। হযরত মুহাম্মদ সাল্লাাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এ মাসে বেশি বেশি নফল রোজা রাখতেন। রমজানের প্রস্তুতির মাস হিসেবে তিনি এ মাসকে পালন করতেন। এ মাসের একটি রাতকে মুসলমানরা বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে থাকেন, মধ্য শাবানের এই রাত আমাদের এই জনপদে ‘শবে বরাত’ হিসেবে পরিচিত। সেই মহিমান্বিত রাত অত্যান্ত সম্মানের সাথে পালিত হয়েছে।
একই সঙ্গে মৃত আত্মীয়-স্বজনের কবর জিয়ারত করে তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেও দোয়া করেন। পাড়া-মহল্লার মসজিদ গুলোতে সন্ধ্যার পর থেকেই ওয়াজ-নসিহত, মিলাদ (দ:) মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। অনেকে গভীর রাত অবধি ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল থেকে শেষ রাতে সেহরি খেয়ে আজও নফল রোজা রাখেন অনেকেই। বরাবরের মতোই শবে বরাতের পরদিন অর্থাৎ আজ সোমবার সরকারি ছুঁটি রয়েছে। বিশ্ব মুসলিমের জন্য এ রাতে মুসল্লীরা একে অপরের প্রতি হিংসা বিদ্বেষ ভুলে গিয়ে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষতিগ্রস্ত সকল মুসলিমদের হেফাজত এবং করুনা প্রদানের জন্য অধিকাংশ মুসল্লিরা মহান আল্লাহর রহমত কামনা করেন।