স্ত্রী হত্যা:থানায় অভিযোগ করতে গিয়ে স্বামীর স্বীকারোক্তি

    0
    222

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৪ফেব্রুয়ারীঃ চতুর্থ স্ত্রীকে হত্যা করে থানায় অভিযোগ করতে গিয়ে আটক স্বামী। নরসিংদী সদরে মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম রত্না বেগম (২৫)।
    সুত্রে জানা গেছে থানায় আটক স্বামী ইউনুছ মিয়া (৩২) প্রথমে থানায় গিয়ে তার স্ত্রীকে  কে বা কারা খুন করেছে মর্মে অভিযোগ করতে গেলে  এক পর্যায়ে পুলিশের জেরার মুখে জানান, স্ত্রীর স্বভাব-চরিত্র ভাল ছিল না। রাতবিরাতে সে ঘর থেকে বের হয়ে যেত। মোবাইলে নানাজনের সঙ্গে কথা বলত। কথা শুনতে চাইত না। তার আগের স্ত্রীদের ছোট ছোট চার সন্তানের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করত রত্না। এমন কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে ভোরে স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যা করে তিনি থানায় যান।
    ইউনুস জানান, এর আগে আরও তিনটি বিয়ে করেছেন। আগের স্ত্রীরা চলে যাওয়ার পর তিন বছর ধরে তিনি এই শিশুদের নিয়ে একাই বসবাস করে আসছিলেন। এ মাসেই হঠাৎ পরিচয় হয় রত্নার সঙ্গে। পরিচয়ের পর ১৯ ফেব্রুয়ারি তাদের বিয়ে হয়।
    রত্না পৌর এলাকার বাসাইলে  কফিল উদ্দিন মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি বি-বাড়িয়া জেলায়। এর বেশি আর কিছু বলতে পারেননি তিনি।
    থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আবুল কাশেম জানান, লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত পুলিশ রত্নার স্বজনদের হদিস পাওয়া যায়নি। জানা গেছে রত্নার  গ্রামের বাড়ি বাহ্মণবাড়িয়া জেলায়।