স্পিকার হচ্ছেন ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী

    0
    435

    ঢাকা, ২৯ এপ্রিল : মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী শেষ পর্যন্ত স্পিকার হচ্ছেন। সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পছন্দের তালিকায় তিনিই শীর্ষে। সোমবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে বলে জানা গেছে। তাকে স্পিকার নির্বাচন করা হবে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে।

    স্পিকার হচ্ছেন ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী
    স্পিকার হচ্ছেন ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী

    সংবিধান অনুযায়ী চলতি অধিবেশনেই স্পিকার নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।
    এর আগে গত ২২ এপ্রিল আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ড. শিরিন শারমীন চৌধুরীকে স্পিকার করার ব্যাপারে নিজের মত প্রকাশ করেন। গতকাল রবিবারের সভায়ও তিনি শিরিন শারমীনের পক্ষে মত দিলে উপস্থিত সবাই তাতে সমর্থন দেন।
    সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় সভাপতিত্ব করেন সংসদীয় বোর্ডের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভায় উপস্থিত ছিলেন সংসদীয় বোর্ডের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত, ওবায়দুল কাদের, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ও ড. আলাউদ্দিন আহমেদ।
    সভা শেষে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, সোমবার বিকেল ৪টায় আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
    আজ সোমবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এবং স্পিকার পদে আনুষ্ঠানিকভাবে ড. শিরিন শারমীনের প্রার্থিতা ঘোষণা করা হবে বলে জানা গেছে। বিকেল ৪টায় জাতীয় সংসদ ভবনে অবস্থিত সরকারি দলের সভা কক্ষে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের এ সভা অনুষ্ঠিত হবে।
    স্পিকার নির্বাচিত হলে তিনি হবেন বাংলাদেশের প্রথম নারী স্পিকার।
    নবম জাতীয় সংসদের নির্বাচিত স্পিকার মো. আবদুল হামিদ এডভোকেট রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ায় বুধবার থেকে এই পদটি শূন্য হয়। বর্তমানে ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) শওকত আলী ভারপ্রাপ্ত স্পিকারের দায়িত্ব পালন করছেন। সংবিধানে স্পিকার পদ শূন্য হলে সাত দিনের মধ্যে তা পূরণের বিধান রয়েছে।
    সংবিধানের ৭৪ (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, কোনো সাধারণ নির্বাচনের পর সংসদের প্রথম বৈঠকে সংসদ-সদস্যদের মধ্য থেকে একজন স্পিকার ও একজন ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত করিবেন এবং এই দু’টি পদের যে কোনোটি শূন্য হইলে সাত দিনের মধ্যে কিংবা ওই সময়ে সংসদ বৈঠকরত না থাকিলে পরবর্তী প্রথম বৈঠকে তাহা পূর্ণ করিবার জন্য সংসদ সদস্যদের মধ্য হইতে একজনকে নির্বাচিত করিবেন।