হবিগঞ্জে গ্যাস সরবরাহ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

    0
    266

    আমারসিলেট24ডটকম,২৯নভেম্বরঃ হবিগঞ্জে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় গ্যাসক্ষেত্র বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ডের সম্প্রসারণ প্রকল্পের গ্যাস উৎপাদন এবং বিবিয়ানা-ধনুয়া গ্যাস সঞ্চালন পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

    এর আগে গ্যাসফিল্ড, বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্প, আধুনিক স্টেডিয়াম, ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, হাসপাতালসহ বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের লক্ষ্যে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে রওনা হয়ে আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পৌঁছান তিনি।

    বেলা পৌনে ১২টার দিকে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ডের কাছে অবতরণ করে। পরে সেখান থেকে সড়ক পথে তিনি গ্যাস ফিল্ড উদ্বোধনস্থলে পৌঁছান। এ ফিল্ডের সম্প্রসারণ প্রকল্পের গ্যাস উৎপাদন এবং বিবিয়ানা-ধনুয়া গ্যাস সঞ্চালন পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহের উদ্বোধন করেন তিনি।

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সমুদ্র সম্পদ আহরণের উদ্যোগ নেব আমরা। গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস, তেল উত্তোলনের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এজন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ক্রয় করা হবে।

    তিনি আরো বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণের ক্ষেত্রে আমাদের বিদেশিদের ওপর নির্ভর না করে নিজেদের উদ্যোগ নিতে হবে। সেই লক্ষ্যে শক্তি সঞ্চয় করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

    শেখ হাসিনা  আরও বলেন, আমরা মিয়ানমার ও ভারতের সঙ্গে সমুদ্রসীমা নির্ধারণ করেছি। উভয়ক্ষেত্রেই আমাদের সমুদ্র জয় হয়েছে। এখন আমাদের কাজ হবে নিজেদের সীমানায় প্রাকৃতিক সম্পদের খোঁজ ও আহরণ করা।

    রাষ্ট্রীয় গ্যাস-তেল অনুসন্ধান ও উত্তোলন কোম্পানিকে (বাপেক্স) আরো শক্তিশালী করা হবে বলে এ সময় জানান তিনি।

    প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের সময়ে দেশে গ্যাস, বিদ্যুতের সরবরাহ বেড়েছে। মূল্যস্ফীতি ৬.২ ভাগে নেমে এসেছে। আমরা স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এগুলো বাস্তবায়নের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আমরা দেশের মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের জন্য কাজ করছি। ক্রিকেট খেলায়ও আমরা জিতছি। পরপর চারটি ওয়ানডে ম্যাচে জিতেছি। আমরা পারি। আসলে আত্মবিশ্বাসই সবচেয়ে বড় জিনিস। আত্মবিশ্বাস থাকলে যে কোন জিনিস করা সম্ভব।

    জানা যায়,হবিগঞ্জ আধুনিক স্টেডিয়াম, হবিগঞ্জ ডায়াবেটিক হাসপাতাল, হবিগঞ্জ নার্সিং ইনস্টিটিউট, হবিগঞ্জ নতুন জেলা পরিষদ অডিটরিয়াম ও কমিউনিটি সেন্টার, হবিগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমি ভবন, হবিগঞ্জ সার্ভার স্টেশন, আলেয়া জাহির কলেজ, জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি অফিস ভবন, বানিয়াচং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, শায়েস্তাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন এবং হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ উন্নয়ন কার্যক্রম উদ্বোধনের কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

    এছাড়াও তিনি আজমিরীগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন ও শাহজীবাজার (৩০০ মেগাওয়াট) কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্ল্যান্টের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। বিকেলে হবিগঞ্জ নিউফিল্ডে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সন্ধ্যায় ঢাকা ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী।
    জানা যায়, বিবিয়ানার সম্প্রসারণ প্রকল্প থেকে প্রতিদিন প্রায় ৩০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদিত হবে। এর ফলে শেভরন পরিচালিত ৩টি ক্ষেত্র থেকে প্রতিদিন গ্যাস উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়াবে প্রায় ১৪০০ মিলিয়ন ঘনফুট।

    বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় ২৪০০ ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন হলেও চাহিদা আরও ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুটের বেশি। প্রধানমন্ত্রী বিবিয়ানা দক্ষিণ ৪০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, বিবিয়ানা-৩ ৪০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, বিবিয়ানা-২ ৩৪১ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিস্থাপন এবং নবীগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিস্থাপন করবেন।

    এরপর নবীগঞ্জের বিবিয়ানা থেকে হবিগঞ্জ শহরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। দুপুরে সেখানকার নিউ ফিল্ডে এক জনসভায় ভাষণ দেবেন এবং হবিগঞ্জের উন্নয়নমূলক প্রায় একডজন প্রকল্প উদ্বোধন ও ভিত্তিস্থাপন করবেন।