হবিগঞ্জে লাইসেন্সবিহীন হাজারো ফার্মেসির দৌরাত্ম্য বেড়েই চলেছে

0
173

নূরুজ্জামান ফারুকী,বিশেষ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের জেলাজুড়ে লাইসেন্সবিহীন বিপুল সংখ্যক ফার্মেসিতে বেআইনিভাবে ওষুধ বিক্রি করা হচ্ছে। ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর এসব ফার্মেসি সিলগালা করার নির্দেশনা দিলেও স্থানীয় প্রশাসন অজানা কারণে এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট সমিতি সূত্রে জানা গেছে, হবিগঞ্জ জেলা শহর ও ৯টি উপজেলায় ৫ হাজারের বেশি ফার্মেসি রয়েছে। এর মধ্যে সাড়ে ৩ হাজার ফার্মেসির নামে ড্রাগ লাইসেন্স আছে। বাকি দেড় হাজার বা তার বেশি ফার্মেসির ড্রাগ লাইসেন্স নেই। এসব ফার্মেসি মালিকরা বেআইনিভাবে ওষুধ বিক্রি করছেন।

এছাড়া ফার্মেসি চালানোর ক্ষেত্রে ফার্মাসিস্ট নিয়োগ করা বাধ্যতামূলক হলেও হবিগঞ্জের অধিকাংশ ফার্মেসিতেই তা করা হয়নি।

এদিকে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের এক নির্দেশনায় হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জনকে ড্রাগ লাইসেন্সবিহীন ফার্মেসির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের এবং এগুলো সিলগালা করে অধিদপ্তরকে অবহিত করার কথা বললেও হবিগঞ্জে সেই অনুযায়ী কোনো কাজ হয়নি।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতালের একজন চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, “ড্রাগ লাইসেন্স ও ফার্মাসিস্ট নিয়োগ দান ছাড়া কোনো ফার্মেসি চালানো বেআইনি, ঝুঁকিপূর্ণও বটে। এই শর্ত অমান্যকারী ফার্মেসিগুলো শিগগিরই বন্ধ করা উচিত। ”

এ বিষয়ে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ নূরুল হক বলেন, “হবিগঞ্জে ড্রাগ সুপারের পদে জনবল না থাকায় এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছে না। এ কাজটি করতে হলে অবশ্যই ড্রাগ সুপারকে যুক্ত করতে হবে।”