হবিগঞ্জে হাফিজি মাদ্রাসার ৯ বছর বয়সি ছাত্রের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধারঃআটক-৫

0
703

নূরুজ্জামান ফারুকী,বিশেষ প্রতিনিধিঃ বানিয়াচং উপজেলার মক্রমপুরে আকরাম খান (৯) নামের এক মাদরাসা ছাত্রকে নৃশংস্বভাবে কে বা কারা হত্যা করেছে?
নিহতের হাত-পা বাঁধা অবস্থায় লাশ পুকুরে ফেলে রাখে দুর্বৃত্তরা।
এ ঘটনায় মাদরাসার প্রিন্সিপাল,স্থানীয় জন-প্রতিনিধিসহ বেশ কয়েকজনকে সন্দেহমূলক আটক করা হয়েছে।
১৬ নভেম্বর বুধবার বিকাল ৪টার দিকে স্থানীয়রা পুকুরে লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পলাশ চন্দ্র দাস, বানিয়াচং থানার ওসি অজয় চন্দ্র দেবসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যান এবং লাশের সুরতহাল তৈরি করে সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।
মক্রমপুর মরহুম শামায়ূন কবীর হাফিজিয়া মাদরাসার ছাত্র আকরাম মাদ্রাসায় থেকেই লেখাপড়া করতো।সে একই গ্রামের মৃত দৌলত খানের পুত্র।
বুধবার (১৬ নভেম্বর) বেলা ১১টার দিকে মাদরাসা থেকে বের হয়। এরপর আর তার খবর পাওয়া যায়নি। বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে তার রক্তমাখা দেহ পুুকুরে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। এ ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।
পুলিশ জানায়, আকরামকে নৃশংস্বভাবে হত্যা করে লাশ পুকুরে ফেলে রাখে। তার দেহে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পুলিশ খবর পেয়ে তার লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।
তবে একটি শিশুকে কেউ এমনভাবে হত্যা করতে পারে অনেকের কাছে তা অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জনপ্রতিনিধি ও প্রিন্সিপালসহ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। গুরুত্ব সহকারে বিষয়টি দেখছে পুলিশ। শীঘ্রই হত্যার রহস্য উন্মোচন করে সাংবাদিকদের জানানো হবে বলে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে।সংবাদ লেখা পর্যন্ত মামলার তথ্য পাওয়া যায় নি।