হবিগঞ্জ-৪ চুনারুঘাট-মাধবপুর আসনে নির্বাচনী হাওয়া

    0
    276

    আমারসিলেট 24ডটকম,০৯অক্টোবর,এস,এম,সুলতান খাননির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে এখনও কোনো সুরাহা না হলেও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার-প্রচারণা, পোস্টারিং ও গণ সংযোগ শুরু করেছেন হবিগঞ্জ-৪ (চুনারুঘাট-মাধবপুর) আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। দলীয় হাই কমান্ডের সাথে লবিং করার পাশাপাশি তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথেও যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন তারা। আওয়ামীলীগের দুর্গ বলে খ্যাত এ আসনে আওয়ামীলীগের ডজন খানেক মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। বিএনপি ভাগ বসানোর জন্য মরিয়া হয়ে মাঠে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

    নতুন-পুরনো মিলে প্রায় ২ ডজন সম্ভাব্য প্রার্থী রয়েছেন মাঠে। এ আসনে আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী এনামূল হক মোস্তফা শহীদ এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহবুব আলী, আওয়ামীলীগের জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট সৈয়দ তানভীর আহমেদ, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাধবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জাকির হোসেন চৌধুরী অসিম, মাধবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহ্ মোঃ মুসলিম, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন ও আরিফুল হাই রাজিব।

    বার্ধক্যজনিত কারণে বর্তমান সংসদ সদস্য সমাজকল্যাণ মন্ত্রী এনামূল হক মোস্তফা শহীদ নির্বাচন করতে না পারলে তার ছেলে নিজামূল হক রানা নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী। তবে তৃণমূল নেতাকর্মীরা মনে করছেন আগামী নির্বাচনেও এনামূল হক মোস্তফা শহীদ এর মনোনয়ন নিশ্চিত। ১৮ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি সৈয়দ মোঃ ফয়সল, সংরক্ষিত আসনের এমপি শাম্মী আক্তার শিপা ও খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় মহাসচিব অধ্যাপক আহমেদ আব্দুল কাদের।

    জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন জেলা জাপার সাবেক সমানে সমান আওয়ামীলীগ বিএনপি সাধারণ সম্পাদক কাউসারুল গণি, চুনারুঘাট উপজেলা জাপার সভাপতি তাজুল ইসলাম ও জাতীয় যুব সংহতির কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল আহাদ শাহীন। ঈদ ও পূজাকে সামনে রেখে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এলাকায় গণ সংযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন।