হিজবুল্লাহর দক্ষতা বেড়েছেঃ১০০০ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের ক্ষমতা

    0
    350

    আমারসিলেট24ডটকম,জানুয়ারীইসরাইলি গোয়েন্দা সূত্রের নানা রিপোর্ট অনুযায়ী ইউরোপের কাছে দেড় লাখ উন্নত মানের এমন ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে যে সেগুলোকে ইসরাইলের যে কোনো অঞ্চলের যে কোনো টার্গেটে নিক্ষেপ করা সম্ভব।

    ইসরাইলের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ইয়াকোভ অ্যামিডরোর-এর দেয়া তথ্য অনুযায়ী ইউরোপের সবগুলো দেশের গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়েও বেশি গোলা আর ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে  হিজবুল্লাহর কাছে।

    অ্যামিডরোর আরো জানিয়েছেন, সিরিয়ার যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ায় হিজবুল্লাহর সামরিক দক্ষতা আগের চেয়েও অনেক বেড়েছে।

    সিরিয়ার বাশার আসাদ দেশটির চলমান যুদ্ধে বিজয়ী হলে সিরিয়া ও লেবাননে হিজবুল্লাহর ক্ষমতা ও প্রভাব বাড়বে বলেও তিনি মন্তব্য করেছেন।

    সম্প্রতি সিরিয়ার গোলানে ইসরাইলি হামলায় হিজবুল্লাহর কয়েকজন যোদ্ধা ও ইরানের একজন জেনারেল শহীদ হন। এরপর হিজবুল্লাহ অধিকৃত শাবা আঞ্চলে ইসরাইলি অবস্থানে হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় ইসরাইলের একজন কমান্ডারসহ ১৭ জন নিহত হয়েছে। অবশ্য তেল আবিব তাদের মাত্র দু’জন সেনার নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে।

    অপরদিকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের একজন শীর্ষস্থানীয় গোয়েন্দা বিশ্লেষক বলেছেন, ইসরাইল ও হিজবুল্লাহর মধ্যে সম্ভাব্য আগামী যুদ্ধে অধিকৃত ফিলিস্তিনে তথা ইসরাইলে প্রতিদিন ১,০০০ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করবে লেবাননের এই দলটি।

    ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইটাই ব্রুন এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।  তিনি বলেছেন, নতুন যুদ্ধে হিজবুল্লাহর সেনারা ইসরাইলে ঢুকে পড়বে যাতে বেশ কয়েকটি ইহুদি-বসতি দখল করা যায় অথবা ইসরাইলের নানা অঞ্চলে অবস্থান করে সেইসব অঞ্চল থেকেই অভিযান চালানো যায়।

    তার মতে, হিজবুল্লাহর কাছে এক লাখেরও বেশি ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে এবং এইসব ক্ষেপণাস্ত্র ইসরাইলের কৌশলগত স্থাপনাগুলো ধ্বংস করতে সক্ষম। এর আগে হিজবুল্লাহর মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহও ইসরাইলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, যুদ্ধ বাধলে হিজবুল্লাহর অস্ত্র-শক্তি ও ক্ষমতা দেখে ইসরাইল বিস্মিত হবে। হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র ইসরাইলের যেকোনো স্থানে আঘাত করতে সক্ষম বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন।

    সম্প্রতি সিরিয়ার গোলানে ইসরাইলি হামলায় হিজবুল্লাহর কয়েকজন যোদ্ধা ও ইরানের একজন জেনারেল শহীদ হন। এরপর হিজবুল্লাহ অধিকৃত শাবা আঞ্চলে ইসরাইলি অবস্থানে হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় ইসরাইলের একজন কমান্ডারসহ ১৭ জন নিহত হয়েছে। অবশ্য তেল আবিব তাদের মাত্র দু’জন সেনার নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে।খবর ইরনা