২৪ জানুয়ারি থেকে ইলিয়াছী তাবলীগের বিশ্ব ইজতেমা টঙ্গিতে

    0
    227

    আমারসিলেট24ডটকম,১জানুয়ারীঃ চলতি জানুয়ারি মাসের ২৪ তারিখ থেকে টঙ্গির তুরাগ নদীর তীরে প্রথম দফায় মাওলানা ইলিয়াছ মেওয়াতির  আবিষ্কৃত  ছয় উছুলের ভিত্তিতে প্রচলিত তাবলীগ জমাতের বিশ্ব ইজতেমা শুরু হচ্ছে। বিশ্বের প্রায় ১০০টি দেশের মুসল্লিরা এবারের ইজতেমায় যোগ দিচ্ছেন বলে  ইজতেমা কর্তিপক্ষ থেকে জানা  যায়।ইতোমধ্যে ইজতেমা অনুষ্ঠানের সকল প্রস্তুতি  সম্পন্ন হয়েছে। এবারে বিশ্ব ইজতেমার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় যাবতীয় উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড অন্যান্য বছরের তুলনায় অধিক হারে করা হয়েছে। পাকা ওযু খানা, গোসল খানা, সাড়ে ৪ হাজার পাকা পায়খানা, ইজতেমায় আগত বিদেশী মেহমানদের থাকা খাওয়ার জন্য গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানিসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে। মুসল্লিদের চলাচলের জন্য রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করা হয়েছে।
    ইজতেমায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কঠোর নিরাপত্তায় সার্বিক পরিস্থির উন্নয়নে ৫টি সেক্টরে ভাগ করে চেক পোষ্ট, টাইকিং ফোর্স, সিসি ক্যামেরা স্থাপন, টঙ্গী থেকে জয়দেবপুর পর্যন্ত, মন্নু গেইট থেকে কামার পাড়া এবং টঙ্গী থেকে উত্তরার প্রতিটি সেক্টরে ট্রাফিক ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পুলিশ, র‍্যাবের একজন করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দায়িত্ব পালন করবেন।

    ইজতেমা উপলক্ষে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন হাতে নিয়েছে বিভিন্ন পদক্ষেপ। এগুলোর মধ্যে রয়েছে  ইজতেমা উপলক্ষে বিভিন্ন স্তরের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও প্রশাসনের সাথে সমন্বয় সাধনের জন্য ইজতেমা মাঠে পৌর কন্ট্রোল রুম স্থাপন,  ইজতেমা ময়দানের প্রবেশ পথে ও অন্যান্য স্থানে ৩টিসহ মোট ৮টি আগত সম্মানিত দেশী বিদেশী মুসুল্লিদের আন্তরিক অভ্যর্থনা জানিয়ে তোরণ নির্মাণ,

    আসন্ন ইজতেমার মাঠে নিছিদ্র নিরাপত্তা বজায় রাখার লক্ষ্যে র‍্যাবের জন্য ৯টি এবং পুলিশের জন্য ৫টি পর্যবেক্ষণ টাওয়ার নির্মাণ, টঙ্গী নদীতে নিরাপত্তার স্বার্থে নৌযান চলাচল বন্ধ রাখার জন্য বাঁশ দ্বারা ২টি নিরাপত্তা বেষ্টনী নির্মাণ, দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগতদের  নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত বিপুল সংখ্যক পুলিশের অস্থায়ী অবস্থানস্থলে বিদ্যুতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
    অপরদিকে ইজতেমা ময়দান ও এর চারিপাশ এবং শহর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য পর্যাপ্ত পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিয়োগ, ইজতেমা টঙ্গী ইজতেমা মাঠে মন্নু টেক্সাইলের ভিতর ৪৪ টি প্রতিষ্ঠানকে মুসল্লিদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য স্থান বরাদ্দ এবং মুসল্লিদের বিনামূল্যে চিকিত্সার জন্য কর্পোরেশন পক্ষ থেকে পর্যপ্ত ঔষধ সরবরাহ করা হবে বলেও জানা যায়।