৩,৩০০ বছরের পুরনো সভ্যতা ধ্বংস করছে জঙ্গিরা

    1
    261

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মার্চঃ উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসআইএল ইরাকের নিমরুদ শহরে অ্যাসিরীয় সভ্যতার নিদর্শন ধ্বংস করে ফেলছে। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইরাক সরকার ও জাতিসংঘ।

    প্রত্নতত্ত্ববিদ ও সাংস্কৃতিক কর্মকর্তারা গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন, জঙ্গিরা ভারী যান দিয়ে খ্রীস্টপূর্ব ত্রয়োদশ শতাব্দির এ সভ্যতা ধ্বংস করছে। জাতিসংঘের শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কোর ইরাক বিভাগের পরিচালক অ্যালেক্স প্লাদে এ ঘটনাকে ‘ইরাকের ঐতিহ্যের ওপর আরেকটি ভয়াবহ হামলা’ বলে মন্তব্য করেছেন। ইরাকের পুরাতত্ত্ব বিশেষজ্ঞ ড. লামিয়া আল-গাইলানি বলেছেন, “তারা আমাদের ইতিহাসকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।”

    তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসআইএল বলেছে, প্রাচীন সমাধিসৌধ ও শিল্পকলা ও স্টাচুগুলো কথিত শিরকের নিদর্শন বলে সেগুলো ধ্বংস করে ফেলতে হবে।

    ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় মসুল নগরী থেকে ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে ৩,৩০০ বছরের পুরনো অ্যাসিরীয় শহর নিমরুদ অবস্থিত। এখানকার অনেক ঐতিহাসিক নিদর্শন আগে থেকেই ইরাকসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের যাদুঘরে স্থানান্তর করা হয়েছে। কিন্তু তারপরও নিমরুদের বেশিরভাগ প্রাচীন নিদর্শন ও স্থাপনা ওই শহরটিতেই অবশিষ্ট ছিল। তাকফিরি সন্ত্রাসীরা বৃহস্পতিবার দুপুরের পরে এসব নিদর্শন ধ্বংসের কাজ শুরু করে।

    গত সপ্তাহে আইএসআইএল একটি ভিডিও প্রকাশ করে যেখানে দেখা যায়, উগ্র সন্ত্রাসীরা তাদের নিয়ন্ত্রিত মসুল শহরের একটি যাদুঘরের ঐতিহাসিক নিদর্শন বড় বড় হাতুড়ি দিয়ে ধ্বংস করে ফেলছে।