লতিফ সিদ্দিকী ভারতে অবস্থান করার বিপক্ষে হাসিনার সরকার

    0
    201

    আমারসিলেট24ডটকম,১৬অক্টোবরঃ অপসারিত মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী ভারতে অবস্থান করার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার। এ জন্য ঢাকার তরফ থেকে দিল্লির কাছেও তার একটা বার্তা পৌঁছে দেয়া হয়েছে বলে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি সূত্র জানিয়েছে। খবরটি ডেইলি স্টারের।
    হাসিনা সরকারের নীতিনির্ধারকরা মনে করছেন লতিফ সিদ্দিকী ভারতে অবস্থান করলে দেশে এক অনাকাঙ্ক্ষিত পরিবেশের সৃষ্টি হতে পারে। কারণ আওয়ামী লীগ সরকার ভারতঘেঁষা হিসেবেই বেশি পরিচিত।
    সূত্রটি জানিয়েছে, লতিফ সিদ্দিকী ভারতে অবস্থান করলে সামনের ঘটনাপ্রবাহে এ ইস্যুটিকেই টেনে নিয়ে আসা হবে। আর এটি ধর্মীয় দল ও সংগঠনগুলোর কাছে এ বার্তাই পৌঁছে দেবে যে, সরকার লতিফ সিদ্দিকীকে সমর্থন দিচ্ছে।
    তবে সরকারের সর্বশেষ অবস্থানে খবর নিয়ে জানা গেছে, ঠিক এই মুহূর্তেই লতিফ দেশে ফিরে আসুক তা সরকার চাচ্ছে না। সূত্রটি জানিয়েছে, লতিফকে যেন ভারতে থাকার অনুমতি দেয়া না হয় সে কথা দিল্লিকে মৌখিকভাবে জানিয়ে দিয়েছে ঢাকা। এ বার্তা পৌঁছে দিতে যোগাযোগ করা হয়েছে ঢাকাস্থ ইন্ডিয়ান হাইকমিশনার এবং দিল্লিতে অবস্থানরত বাংলাদেশ হাইকমিশনের সঙ্গে।
    এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানান।
    পবিত্র হজ ও মহানবী সাল্লাল্লাহু তায়ালা আলাইহে ওয়া সাল্লামকে নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দেয়ার ঘটনায় লতিফ সিদ্দিকীকে গত রোববার ডকি ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থেকে অপসারণ করা হয়। একই সঙ্গে তাকে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যের পদ থেকেও তাকে বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগ। তার প্রাথমিক সদস্যপদও সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে।
    গত রোববার লতিফ সিদ্দিকী ভারতে এসে পৌঁছান। তিনি এখন কলকাতায় দিন পার করছেন। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার জন্য তার বিরুদ্ধে দেশে ৩০টি মামলা করা হয়েছে। সুত্রঃডেইলি স্টার।