0
    228

    আমারসিলেট 24ডটকম ,২২সেপ্টেম্বর  : আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৮তম অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে যাচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্রে ৮ দিনের সরকারি সফরে নিউইয়র্কের উদ্দেশে আজ  রবিবার ঢাকা ত্যাগ করবেন। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর ইউএনজিএ’র ৬৮তম অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। এছাড়া তিনি বেশ কিছু উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে যোগ দেবেন এবং দ্বিপাক্ষিক আলোচনা ও করবেন। এর পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং ও জাতিসংঘ মহাসচিব বান-কি-মুনের সাথে বৈঠক করবেন।
    পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফর সঙ্গীদের নিয়ে এমিরেটস এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইট আজ  রবিবার রাত সাড়ে ৯টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর ত্যাগ করবেন। নিউইয়র্কে যাত্রা পথে শেখ হাসিনা ও তার সফর সঙ্গীরা দুবাই আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে দুই ঘণ্টার যাত্রা বিরতি করবেন। ফ্লাইটটি ২৩ সেপ্টেম্বর সকাল সোয়া ৮টায় জন এফ কেনেডি (জেএফকে) আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে। ওই বিমান বন্দরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত একরামুল কাদের, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. একে আব্দুল মোমেন প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন।

    এর পর প্রধানমন্ত্রীকে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে পার্ক এভিনিউর গ্রান্ড হায়াত হোটেলে নিয়ে যাওয়া হবে। তিনি সেখানেই অবস্থান করবেন।
    আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর কমনওয়েলথ মহাসচিব কমলেশ শর্মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে তার হোটেল স্যুটে সাক্ষাৎ করবেন। সন্ধ্যায় তিনি ওয়ালড্রফ এস্টোরিয়া হোটেলে আয়োজিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও তার স্ত্রী মিশেল ওবামার এক সংবর্ধনায় যোগ দেবেন। এরপর শেখ হাসিনা ইন্টার ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর সাউথ কো-অপারেশনের (আইওএসএসসি) কার্যালয়ে আয়োজিত সংস্থাটির এক অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের দেয়া এক সংবর্ধনা সভায় অংশ নেবেন। ওইদিন তিনি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৮তম অধিবেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসমাপ্ত কার্য সম্পাদন এমডিজি’র অগ্রগতি ত্বরান্বিতকরণ শীর্ষক এক উচ্চ-পর্যায়ের পার্শ্ব বৈঠকে অংশ নেবেন। তিনি জাতিসংঘ মহাসচিবের দেয়া এক মধ্যাহ্ন ভোজেও যোগ দেবেন।
    জাতিসংঘ সদর দপ্তর থেকে প্রধানমন্ত্রী কাতারের আমীর তামিম বিন হামাদ আল-সানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে ফার্স্ট এভিনিউতে অবস্থিত জাতিসংঘ প্লাজায় কাতারের স্থায়ী মিশনে যাবেন। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সদর দপ্তরের ট্রাস্টিশিপ কাউন্সিল চেম্বারে আয়োজিত লিডারস ডায়লগ  এইচএলপিএফ-ফ্রম ভিশন টু একশন শীর্ষক অনুষ্ঠানে অন্যতম মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।
    পরে সৌদি আরব ও চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রীরা জাতিসংঘ সদর দপ্তরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।
    প্রধানমন্ত্রী ২৫ সেপ্টেম্বর এমডিজি অর্জনে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে সাধারণ পরিষদের সভাপতির উদ্যোগে বিশেষ গোলটেবিল বৈঠকে যোগ দেবেন। পরে তিনি জাতিসংঘ সদর দপ্তরের ইকোসক চেম্বারে গ্লোবাল এডুকেশন ফার্স্ট ইনিশিয়েটিভ (জিইএফআই) অ্যানিভার্সারি ইভেন্টে’ অংশ নেবেন। সন্ধ্যায় শেখ হাসিনা বাংলাদেশ হাউসে নৈশভোজে অংশ নেবেন।
    ২৬ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সদর দপ্তরে আর্মস ট্রেড ট্রিটি (এটিটি) এন্ড প্রটোকল অন এক্সপ্লোসিভ রেমনান্টস অব ওয়ার অব কনভেনশন অন সারটেইন কেমিক্যাল উইপনস এ স্বাক্ষর করবেন। তিনি পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনেও যোগ দেবেন।
    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৮তম অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। পরে তিনি নিউইয়র্কে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনে এক সংবাদ সম্মেলরে যোগ দেবেন।
    শেখ হাসিনা ২৮ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক প্যালেস হোটেলে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের সঙ্গে বৈঠক করবেন। বিকেলে তিনি হিলটন হোটেলে বাংলাদেশী কমিউনিটি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।
    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৯ সেপ্টেম্বর সকালে দেশের উদ্দেশ্যে নিউইয়র্ক ত্যাগ করবেন এবং তিনি দুবাই হয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় বিকেল ৫ টা ৪০ মিনিটে ঢাকায় এসে পৌঁছবেন বলে আশা করা হচ্ছে।