কালিয়ায় খেয়া পারের সময় নৌকা ডুবে মা ও শিশু সন্তানের মৃত্যু:নিখোঁজ-৪

0
175

সুজয় বকসী,নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলের কালিয়া উপজেলার বাহিরডাঙ্গা-তেলিডাঙ্গা খেয়াঘাটে ইঞ্জিন চালিত নৌকা ডুবে মা নাজমা বেগম (২৫) ও তার চার বছরের ছেলে সন্তান নাছিমের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া অন্তত ৫ জন নিখোজ রয়েছে। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নাজমা তার মৃত দাদিকে দেখতে বাহিরডাঙ্গা-তেলিডাঙ্গা খেয়াঘাটে নৌকায় নদী পার হচ্ছিলেন। ফায়ার সার্ভিস ও নৌ পুলিশের তত্ত্বাবধায়নে উদ্ধার কাজ চলছে। জেলা প্রশাসক মোহম্মদ হাবিবুর রহমানসহ প্রশাসনের কর্তাদের ঘঁনাস্থল পরিদর্শন।

জানা গেছে, কালিয়া উপজেলার হামিদুপুর ইউনিয়নের বাবুপুর গ্রামের জলিলের স্ত্রী নাজমা তার সন্তান নিয়ে মৃত দাদীকে দেখতে একই উপজেলার সালামাবাদ ইউনিয়নের বাহিরডাঙ্গা গ্রামে যাচ্ছিলেন। নদী পার হয়ে নাজমা দাদী বাড়িতে যাবার সময় ছোট আকৃতির খেয়া নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী বহনের কারনে ডুবে যায়। এসময় বেশ কয়েকজন যাত্রী সাতার কেটে ডাঙ্গায় উঠতে পারলেও নাজমা তার ৪ বছরের সন্তানকে নিয়ে ডাঙ্গায় উঠতে পারেনি। পরে স্থানীয় লোকজন ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা এসে নাজমা ও তার সন্তানের মৃতদেহ উদ্ধার করে। এছাড়া আরো অন্তত ৫জন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে বলে স্থানীয় লোকজন জানিয়েছে। তবে তাদের নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

কালিয়া ফায়ার সার্ভিস এ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার আব্দুল হান্নান বলেন, নৌকাটিতে ১৮ থেকে ২০ জনের মতো যাত্রী ছিলো। কয়েকজন সাঁতার কেটে তীরে উঠলেও ৪-৫ জন নিখোঁজ রয়েছেন। এর মধ্যে শিশুসহ তার মায়ের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নাজমার পিতার নাম এনামুল মন্ডল। এছাড়া নিখোজ যাত্রীদের উদ্ধার তৎপরতা চলছে।
এখন পর্যন্ত নিখোজ রয়েছে কালিয়ার মাহমুমদ শেখ ( ৪৫), বাহিরডাঙ্গা গ্রামের রয়েল মন্ডল (৩০), গ্রাম পুলিশ লাবু শেখ (২৮) ও জোকার চরেরর মোঃ খানজাহান আলী (৫০)।
এ দিকে আজ শনিবার (১ডিসেম্বর) সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন জেলা প্রশ্রাসক মোহাম্মদ হাবিববুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরিন জাহানসহ জেলা ও উপজেলা প্রশাসকের কর্মকর্তাগন।