নানা আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হচ্ছে

0
205

সুজয় কুমার বকসী,নড়াইল প্রতিনিধিঃ নানা আয়োজনে নড়াইলে আজ ১৭ ই মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে।
আজ শুক্রবার দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসন ও আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন সরকারি বে-সরকারি প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন আলাদা আলাদাভাবে এর আয়োজন করছে।
জেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে সকাল ৭ টায় জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। বিকালে শহরের সিকদার মার্কেট চত্বরে কেককাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।
এ সময় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও নড়াইল-২ এর সংসদ সদস্য ও মাশরফি বিন মোতুর্জা, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোস, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নিজামউদ্দিনখান নিলু,সহ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন,সকাল ৮ টায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পুরাতন টার্মিনালে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে একটি শোভাযাত্রা শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমী চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মঞ্চে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোতুর্জা,জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,আওয়ামীলীগসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের পক্ষ থেকে বঙ্গ বন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে কেক কাটা হয়। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে দিবসের তাৎপর্যের উপর ও শিশুর স্বাস্থ্য সচেতনতা , পুষ্টি ও খাদ্য সম্পর্কে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও নড়াইল-২ এর সংসদ সদস্য ও মাশরফি বিন মোতুর্জা,জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার সাদিরা খাতুন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোস, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নিজামউদ্দিনখান নিলু, পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরাসহ সরকারি -বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন সংগঠনের কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
দিবসের আন্যান্য কর্মসুচির মধ্যে রয়েছে, শিশুদের অংশ গ্রহনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিশেষ মোনাজাত/প্রার্থনা, কুইজ,চিত্রাংকন,রচনা প্রতিযোগীতা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও মহান মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তি পুস্তক ও ডুমেমেন্টটরি প্রদর্শন , ৭ মার্চের ভাষন প্রদর্শন, পুরস্কার বিতরনী সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান । এছাড়াও সরকারী, বে-সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে আলাদা আলাদা কর্মসুচি গ্রহন করা হয়েছে।